কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় ‘রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে’ নিয়োগ করা দুই হাজার চিকিৎসকের কর্মস্থল ঠিক করে দিয়েছে সরকার।

কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় ‘রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে’ নিয়োগ করা দুই হাজার চিকিৎসকের কর্মস্থল ঠিক করে দিয়েছে সরকার।

কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় ‘রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে’ নিয়োগ করা দুই হাজার চিকিৎসকের কর্মস্থল ঠিক করে দিয়েছে সরকার।

 

এএনবিঃ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নব নিয়োগ শাখা শনিবার নতুন নিয়োগ পাওয়া এই সহকারী সার্জনজের পদায়নের আদেশ জারি করেছে।

সেখানে বলা হয়েছে, এই চিকিৎসা কর্মকর্তারা পরবর্তী আদেশ না হওয়া পর্যন্ত কেবল কোভিড-১৯ এর চিকিৎসায় ‘ডেডিকেটেড’ হাসপাতাল/প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন করবেন। আগামী ১২ মে দুপুরের আগেই তাদের নির্ধারিত কর্মস্থলে যোগ দিতে হবে। 

৩৯তম বিশেষ বিসিএসের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও পদ না থাকায় ৮ হাজার ১০৭ জন সে সময় নিয়োগের সুপারিশ পাননি। করোনাভাইরাস সঙ্কটে স্বাস্থ্যসেবা খাতের ওপর অতিরিক্ত চাপ পড়ায় ওইসময় নিয়োগ না পাওয়াদের মধ্যে থেকে দুই হাজার জনকে সহকারী সার্জন পদে নিয়োগের সুপারিশ করেছিল পিএসসি।

সেই আদেশে বলা হয়, “সাময়িকভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত সহকারী সার্জনদের কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে হবে। কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত রোগীর সেবা প্রদানকালীন তার কর্মদক্ষতা সন্তোষজনক কি না, চাকরি স্থায়ীকরণের সময় তা বিবেচনা করা হবে।”

এর ভিত্তিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় গত ৪ মে তাদের নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে। সেখানে বলা হয়, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ এদের যেখানে পদায়ন করবে সেই কর্মস্থলে তাদের আগামী ১২ মে যোগদান করতে হবে।