দিনাজপুরে একদিনে আরো ৩২ জনসহ মোট করোনায় আক্রান্ত ১৭২৫ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১১০০ মোট মৃত্যু ৩৭ জন 

দিনাজপুরে একদিনে আরো ৩২ জনসহ মোট করোনায় আক্রান্ত ১৭২৫ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১১০০ মোট মৃত্যু ৩৭ জন 

দিনাজপুরে একদিনে আরো ৩২ জনসহ মোট করোনায় আক্রান্ত ১৭২৫ জন এ পর্যন্ত সুস্থ ১১০০ মোট মৃত্যু ৩৭ জন 


এএনবি মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ঈদুল আযহা’র দিন নতুন আরো ৩২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১৭২৫ জনে। আর গত ২৪ ঘন্টায় একজনসহ এ পর্যন্ত ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর নতুন ২৮ জনসহ এ পর্যন্ত ১১০০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। তবে আক্রান্ত ১৭২৫ জনের মধ্যে ১১০০ জন সুস্থ ও ৩৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় বর্তমানে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা রয়েছে ৫৮৮ জন। 
দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, শনিবার (১ আগষ্ট) ঈদুল আযহা’র দিন রাত ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘন্টায় ১১২টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। যার মধ্যে নতুন করে ৩২ জনের দেহে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ১৭২৫ জনে।  এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় একজনসহ এ পর্যন্ত ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর নতুন ২৮ জনসহ এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১১০০ জন। 
নতুন আক্রান্ত ৩২ জনের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলাতেই ১৭ জন, বিরলে দুইজন, বিরামপুরে একজন, হাকিমপুরে ৬ জন, কাহারোলে একজন, পার্বতীপুরে একজন ও ফুলবাড়ী উপজেলায় ৪ জন। অপরদিকে নতুন সুস্থ’ ২৮ জনের মধ্যে সদরে ২৩ জন, নবাবগঞ্জে ৩ জন ও চিরিরবন্দর উপজেলায় দুইজন। 
জেলায় আক্রান্ত ১৭২৫ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৩৬ জন, বিরলে ৯৫ জন, বিরামপুরে ১৯৫ জন, বীরগঞ্জে ৪৮ জন, বোচাগঞ্জে ৩৩ জন, চিরিরবন্দরে ৯৫ জন, ফুলবাড়ীতে ৭১ জন, ঘোড়াঘাটে ৭১ জন, হাকিমপুরে ৩৮ জন, কাহারোলে ৬৩ জন, খানসামায় ৬০ জন, নবাবগঞ্জে ৮২ জন ও পার্বতীপুর উজেলায় ১৩৬ জন।
তিনি জানান, এ পর্যন্ত ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৯ জন, বিরামপুরে ৩ জন, বীরগঞ্জে ৩ জন, বোচাগঞ্জে দুইজন, চিরিরবন্দরে ৫ জন, ফুলবাড়ীতে ৬ জন, কাহারোলে একজন, খানসামায় একজন, নবাবগঞ্জে দুইজন, পার্বতীপুরে দুইজন ও বিরল উপজেলায় দুইজন। তিনি জানান, দিনাজপুর জেলায় এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ৩৭ জন। আর এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ২৮ জন মৃত্যুবরণ করেছে বলে জানান সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ।