দিনাজপুরে নতুন আরো ১৩ জনসহ জেলায় করোনায় আক্রান্ত ২৮১ জন ।। সুস্থ ৭০ জন 

এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ২৮১ জনে।

দিনাজপুরে নতুন আরো ১৩ জনসহ জেলায় করোনায় আক্রান্ত ২৮১ জন ।। সুস্থ ৭০ জন 

মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন আরো ১৩ জনসহ জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৮১ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে বিরলে দুইজন, সদরে ৯ জন ও ফুলবাড়ী উপজেলায় দুইজন। এছাড়া বীরগঞ্জে দুই শিশুসহ ১০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। 

দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল কুদ্দুছ শুক্রবার (৫ জুন) রাত সাড়ে ৯টায় গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন আরো ১৩ জন করোনায় আক্রান্তের খবরটি নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ২৮১ জনে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে বিরলে দুইজন, সদরে ৯ জন ও ফুলবাড়ী উপজেলায় দুইজন। 
আক্রান্ত ২৮১ জনের মধ্যে ২০১ জন পুরুষ, ৬৭ জন নারী ও শিশু ১৩ জন। 

এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় বীরগঞ্জ উপজেলায় ১০ জনসহ এ পর্যন্ত ৭০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। আর এ পর্যন্ত দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত দুইজনের মধ্যে সদর উপজেলায় একজন পুরুষ ও চিরিরবন্দর উপজেলায় একজন নারী রয়েছেন। 

তিনি জানান, আক্রান্ত ২৮১ জনের মধ্যে রয়েছে সদর উপজেলায় ৭৭ জন (মৃত একজনসহ), কাহারোলে ১২ জন, বিরলে ৩২ জন, বোচাগঞ্জে ৯ জন, পার্বতীপুরে ২১ জন, ফুলবাড়ীতে ১০ জন, নবাবগঞ্জে ২১ জন, হাকিমপুরে ৪ জন, খানসামায় ১১ জন, বিরামপুরে ২৭ জন, ঘোড়াঘাটে ২৬ জন, চিরিরবন্দরে ১৭ জন (মৃত একজনসহ) ও বীরগঞ্জ উপজেলায় ১৪ জন। 

তিনি আরো জানান, গত ২৪ ঘন্টায় বীরগঞ্জে ১০ জনসহ এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন ৭০ জন। সুস্থদের মধ্যে দিনাজপুর সদর উপজেলায় ১৯ জন, ফুলবাড়ীতে একজন, নবাবগঞ্জে ৬ জন, পার্বতীপুরে ৩ জন, কাহারোলে ৭ জন, বোচাগঞ্জে ৫ জন, হাকিমপুরে দুইজন, ঘোড়াঘাটে দুইজন, বিরামপুরে ৩ জন, বিরলে ৯ জন, খানসামায় দুইজন, চিরিরবন্দরে একজন ও বীরগঞ্জ উপজেলায় ১০ জন।  

সিভিল সার্জন জানান, এ পর্যন্ত ৩৯৯৬টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ৩৮৪৮টি নমুনার ফলাফল এসেছে। শুক্রবার ৫ জুন দিনাজপুর ল্যাব হতে ১৬৩টি নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১৩টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ ও বাকী ১৫২টি নমুনার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। এ নিয়ে দিনাজপুর জেলায় মোট করোনায় (কোভিট-১৯) প্রমানিত রোগির সংখ্যা দাড়ালো ২৮১ জন। এছাড়া শুক্রবার ২৫টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। 
সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুছ আরো জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ১৪৩ জনসহ এ পর্যন্ত ৯৯৫২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। আর হোম কোয়ারেন্টাইন হতে ছাড় পেয়েছেন ৭৬০৮ জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ২৩৪৪ জন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ১৭৫ জন, প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে রয়েছেন ২৮ জন, হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৬ জন ও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি।